সেদিন একসঙ্গে ৩২ কোটি গালি খেয়েছি : তামিম -Deshebideshe


ঢাকা, ০৯ মে – গত দুই ওয়ানডে বিশ্বকাপে একটি বিষয় ছিল সাধারণ। গুরুত্বপূর্ণ সময়ে তামিম ইকবালের ক্যাচ ছাড়ার ঘটনা। ২০১৫ সালের বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে শেষ দিকে ছেড়ে দিয়েছিলেন ক্রিস ওকসের ক্যাচ আর সবশেষ আসরে তার হাত থেকে পড়েছে রোহিত শর্মাকে আউট করার সুযোগ।

অস্ট্রেলিয়াতে হওয়া ২০১৫ সালের বিশ্বকাপে ওকসের ক্যাচ মিসের মাশুল দিতে গিয়ে ম্যাচ হারতে হয়নি, পরের ওভারেই বাংলাদেশকে জিতিয়ে দিয়েছিলেন পেসার রুবেল হোসেন। তবে ক্যাচ ছাড়ার পর তামিম একসঙ্গে হজম করেছিলেন ৩২ কোটি গালি।

শুক্রবার রাতে সে ম্যাচ নিয়ে কথা বললেন তামিম নিজেই। জাতীয় দলের দুই পেসার তাসকিন আহমেদ ও রুবেলের সঙ্গে দেয়া লাইভ আড্ডার একপর্যায়ে যুক্ত করা হয় স্পিনিং অলরাউন্ডার নাসির হোসেনকে। তিনিই তোলেন ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ক্যাচ মিসের প্রসঙ্গটা।

তখন তামিম বলেন, ‘আমি সব সময় নাসিরকে বলতাম, নাসির চিন্তা কর, বিশ্বকাপের ফাইনাল খেলা, ১ বলে ২ রান দরকার, বল আকাশে উঠল, তুই ক্যাচ মিস করলি। তোর কেমন লাগবে? এটা নিয়ে ওর সঙ্গে মজা করতাম। আল্লাহ মনে হয় বেশি সিরিয়াসলি নিয়েছেন আর আমার সঙ্গেই ঘটে গেছে এটা।’

তিনি বলতে থাকেন, ‘২০১৫ বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে আমি ওকসের ক্যাচটা ছেড়েছিলাম তাসকিনের বলে, যে সময় খেলাটা খুব জমে গিয়েছিল। ক্যাচটা ছাড়ার পর আমার মনে হচ্ছিল, মাটি দুই ভাগ হয়ে যাক, আমি ভেতরে ঢুকে যাই, আমাকে কেউ আর দেখার দরকার নাই। আমি ওই মুহূর্তে একসঙ্গে ৩২ কোটি গালি খেয়েছি। ৩২ কোটি কারণ, বাংলাদেশের ১৬ কোটি মানুষ, একটা করে গালি তো দেয়নি, দুইটা করে দিয়েছে সবাই।’

পরের ওভারে রুবেল দুই উইকেট নিয়ে নিশ্চিত করল জয়। তখন হাঁফ ছেড়ে বাঁচেন তামিম, ‘তারপর রুবেল দুই উইকেট নিয়ে নিল। ওই খেলার হাইলাইটস দেখলে দেখবি সবাই রুবেলের পেছনে দৌড়ায়। সবাই তো রুবেলের পেছনে দৌড়েছে যে ম্যাচ জিতে গেছি বলে, আর আমি রুবেলের পেছনে দৌড়েছি যে, আমি বেঁচে গেছি (হাসি)! যদি ওই ম্যাচ হারতাম, তাহলে আমার আর বাংলাদেশে আসা লাগত না।’

এসময় তামিম নিজেও আফসোস করেন বিশ্বকাপের গুরুত্বপূর্ণ সময়ে তার হাত থেকে ক্যাচ ছুটে যাওয়ার ব্যাপারে। দেশের অন্যতম সেরা ফিল্ডার হয়েও বিশ্বকাপে গেলেই যেন সব ওলটপালট হয় তামিমের। তার আশা ২০২৩ বিশ্বকাপে সব পুষিয়ে দিতে পারবেন।

তামিম বলেন, ‘আল্লাহই জানে, কেন বিশ্বকাপ আসলেই আমার কাছ থেকে ক্যাচ ছুটে যায়! এবারও (২০১৯) বিশ্বকাপে ক্যাচ ছুটে গেছে। আশা করি, ২০২৩ বিশ্বকাপ যদি খেলতে পারি, তাহলে একবারে সব পুষিয়ে দিব।’

সূত্র : জাগো নিউজ
এন এইচ, ০৯ মে





Source link

Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!