সীমিত আকারে ফ্লাইট চালুর সম্ভাবনা, বিক্রি হচ্ছে অভ্যন্তরীণ রুটের টিকিট

নভেল করোনা ভাইরাসের কারণে সাধারণ ছুটি ঘোষণা হওয়ার পর থেকেই ঢাকায় অবস্থান করছেন জুনায়েদ শুভ্র। হঠাৎ করে যোগাযোগ ব্যবস্থা বন্ধ হওয়ায় নিজ জেলা রাজশাহীতে যেতে পারেন নি তিনি। তবে আগামী ৮ মের পর থেকে অভ্যন্তরীণ রুটের ফ্লাইট শুরু হচ্ছে এমন তথ্য তিনি পেয়েছেন ট্রাভেল এজেন্সি থেকে। এরই মধ্যে বেসরকারি একটি এয়ারলাইনস থেকে ঢাকা রাজশাহী রুটে আগামী ৯ মের একটি টিকিটও কেটেছেন তিনি।

ট্রাভেল এজেন্সিগুলো বলছে, অভ্যন্তরীণ রুটে ফ্লাইট পরিচালনায় আগামী ৭ মে পর্যন্ত বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। এ কারণে তারা ৮ মে থেকে অভ্যন্তরীণ রুটে ফ্লাইটের টিকিট বিক্রি করছেন। এয়ারলাইনসগুলোও তাদের টিকিট বিক্রি ও ফ্লাইট শিডিউল খোলা রেখেছেন। তবে সরকারি সিদ্ধান্তে ফ্লাইট বন্ধ থাকলে টিকিটের টাকা ফেরত দেয়া হবে।

টিকিট বিক্রির বিষয়ে জানতে চাইলে বেসরকারি এয়ারলাইনস সংস্থা ইউএস-বাংলা এয়ারলাইনসের মহাব্যবস্থাপক (জনসংযোগ) মো. কামরুল ইসলাম বলেন, নভেল করোনা ভাইরাসের কারণে সরকারি সিদ্ধান্তে অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট বন্ধ রয়েছে। আপাতত আগামী ৭ মে পর্যন্ত এ নিষেধাজ্ঞা থাকায় এর পরের তারিখগুলোর টিকিট বিক্রির সিস্টেম চালু আছে। যাত্রীরা টিকিটও কাটছেন, ফ্লাইটও চলবে। তবে সরকার যদি নিষেধাজ্ঞার পরিসর বাড়ায় তবে ফ্লাইট বাতিল করার পাশাপাশি যাত্রীদের অর্থও ফেরত দেয়া হবে।

বেবিচক সূত্রে জানা গেছে, অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট চালুর ক্ষেত্রে কী কী রিস্ক রয়েছে, সেগুলো পর্যালোচনা করে দেখছে বেবিচক। একই সঙ্গে ফ্লাইট বন্ধ থাকায় এয়ারলাইনসগুলোর বর্তমানও ভবিষ্যৎ কতটা ক্ষতি হচ্ছে, সেটাও পর্যালোচনা করা হচ্ছে। আর আগামী মাসেও অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট বন্ধ থাকলে পরিস্থিতি কী হবে, সেটিও বিবেচনা করছে বেবিচক।

অভ্যন্তরীণ রুটে ফ্লাইট চালুর সম্ভাবনার বিষয়ে জানতে চাইলে বেবিচকের ঊর্ধ্বতন এক কর্মকর্তা জানান, সীমিত আকারে অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট চালু হতে পারে। তবে বিষয়টি পুরোপুরি নির্ভর করছে সরকারের সিদ্ধান্তের ওপর। সরকার যেমন আদেশ করবেন, তেমন নির্দেশনাই জারি করবে বেবিচক।

তিনি বলেন, তবে ফ্লাইট চালু করার আগে স্বাস্থ্য নিরাপত্তার বিষয়টি নিশ্চিত করাতে বেশ কিছু পদক্ষেপ নেয়া হতে পারে।

প্রসঙ্গত, আগামী ৭ মে পর্যন্ত আন্তর্জাতিক ও অভ্যন্তরীণ রুটের ফ্লাইট চলাচলে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে বেবিচক। বাহরাইন, ভুটান, হংকং, ভারত, কুয়েত, মালয়েশিয়া, মালদ্বীপ, ওমান, কাতার, সৌদি আরব, শ্রীলংকা, সিঙ্গাপুর, থাইল্যান্ড, তুরস্ক, ইউএই, ইউকে—এ ১৬টি দেশের সঙ্গে বিদ্যমান ফ্লাইট চলাচল রুটের ক্ষেত্রে এ নিষেধাজ্ঞা কার্যকর। তবে এ সিদ্ধান্ত শুধু শিডিউল প্যাসেঞ্জার ফ্লাইট চলাচলের ক্ষেত্রে। বিশেষ অনুমতি সাপেক্ষে চার্টার্ড ফ্লাইট এর আওতামুক্ত রয়েছে।

গত সোমবার বেবিচক চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল মফিদুর রহমান স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, আন্তর্জাতিক ফ্লাইটে যাত্রী পরিবহনের (শিডিউল প্যাসেঞ্জার ফ্লাইট) ক্ষেত্রে বিমান চলাচল নিষেধাজ্ঞা ৭ মে পর্যন্ত বর্ধিত করা হলো। একই সঙ্গে অভ্যন্তরীণ যাত্রী পরিবহনের ক্ষেত্রে বিমান চলাচল নিষেধাজ্ঞা আগামী ৭ মে পর্যন্ত বর্ধিত করা হলো, যা আগে ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত ছিল। কার্গো, ত্রাণ সাহায্য, এয়ার অ্যাম্বুলেন্স, জরুরি অবতরণ ও স্পেশাল ফ্লাইট পরিচালনার কার্যক্রম চালু থাকবে।

নিউজ সোর্স – বণিকবার্তা

Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!