লকডাউনের মধ্যে বোর্ডের কাছে রায়নার আবদার -Deshebideshe


মুম্বাই, ১০ মে – ভারতীয় ক্রিকেট দলের হয়ে ৩০০’র বেশি আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেছেন বাঁহাতি ব্যাটসম্যান সুরেশ রায়না। তবে ২০১৮ সালের পর থেকে আর জাতীয় দলে খেলা হয়নি তার। ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিসিআই) শর্তের কারণে আইপিএল ছাড়া আর বড় কোন লিগে খেলা সম্ভব হয় না তার পক্ষে।

শুধু রায়না নয়, ভারতের কোন ক্রিকেটারেরই বিশ্বের আর কোন ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক টি-টোয়েন্টি লিগে খেলার অনুমতি। করোনাভাইরাসের কারণে চলমান লকডাউনের মধ্যে এ বিষয়েই বোর্ডের কাছে একটি আবদার করেছেন ৩৩ বছর বয়সী রায়না।

ইরফান পাঠানের সঙ্গে ইন্সটাগ্রাম লাইভ আড্ডায় রায়না জানিয়েছেন, তাদের যেন আইপিএলের বাইরেও অন্তত দুইটি ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগে খেলার অনুমতি দেয়া হয়। যাতে করে অন্যান্য দেশের খেলোয়াড়দের মধ্যে নিজেদের সামর্থ্য যাচাইয়ের পাশাপাশি অনেক কিছু শিখতেও পারেন তারা।

রায়না বলেছেন, ‘আমি মনে করি ফ্র্যাঞ্চাইজি বা আইসিসির সঙ্গে বসে বিসিসিআই ঠিক করবে যে, কেন্দ্রীয় চুক্তির বাইরে থাকা ক্রিকেটাররা চাইলে বিদেশের লিগ খেলতে পারবে। ইউসুফ পাঠান, আমি, রবি উথাপ্পা- এমন অনেক প্রতিভাবান খেলোয়াড় আছে যারা বিদেশে গিয়ে অনেক কিছু শিখতে পারবে। সেটা যে লিগই হোক, আমাদের অন্তত বিদেশের দুইটিতে খেলার অনুমতি দেয়া হোক।’

তিনি আরও যোগ করেন, ‘আমরা বিসিসিআইয়ের কেন্দ্রীয় চুক্তিতে, আমাদের কয়েকজনের আইপিএল চুক্তিও নেই, আমরা আন্তর্জাতিক ক্রিকেটও খেলছি না এবং ঘরোয়া ক্রিকেটের মানও ঠিক সর্বোচ্চ পর্যায়ের না। আমরা বিগ ব্যাশ, সিপিএল বা অন্য কোথাও যদি তিন মাস কোয়ালিটি ক্রিকেট খেলতে পারি। তাহলে আমরা নিজেদের (দেশের খেলার জন্য) প্রস্তুত রাখতে পারব।’

এসময় অন্যান্য দেশের খেলোয়াড়দের সঙ্গে তুলনা করে রায়না আরও বলেন, ‘অন্যান্য দেশের খেলোয়াড়রা এসব লিগ খেলতে পারে। এমনকি অনেক উদাহরণ আছে যে এসব লিগ খেলে জাতীয় দলেও ফিরেছে তারা। আমরা আইপিএল খেলি ঠিক কিন্তু নির্বাচকদের কাছে ৪০-৫০ জনের একটা তালিকা আছে। তারা মনে করে এর বাইরে কোন ভাল খেলোয়াড় নেই। আমাদের কোন বিকল্প পরিকল্পনা নেই। আমরা যদি বাইরে গিয়ে ভাল খেলতে পারি তাহলে আমাদের ক্রিকেটই এগিয়ে যাবে।’

সূত্র : জাগো নিউজ
এন এইচ, ১০ মে





Source link

Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!