মাঝ আকাশে সংঘর্ষ থেকে অল্পের জন্য রক্ষা পেল ইরানি বিমান

সিরিয়ার আকাশে যুক্তরাষ্ট্রের একটি যুদ্ধবিমান ইরানের যাত্রীবাহী বিমানের বিপজ্জনক কাছাকাছি আসার পর ইরানি ওই বিমানের বেশ কয়েকজন যাত্রী আহত হয়েছেন। ইরানের গণমাধ্যমে এমন তথ্য জানানো হলেও মার্কিন সামরিক বাহিনী দাবি করছে, তাদের এফ-১৫ যুদ্ধবিমানটি নিরাপদ দূরত্বেই ছিল।

ইরানের বেসরকারি বিমান পরিবহন সংস্থা মাহান এয়ারের ওই ফ্লাইটটি বৃহস্পতিবার পর লেবাননের রাজধানী বৈরুতের উদ্দেশ্যে তেহরান ত্যাগ করে। সন্ধ্যার দিকে বিমানটি সিরিয়ার আকাশ দিয়ে ওড়ার সময় ঘটনাটি ঘটে। ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে বিষয়টি তদন্ত করা হবে।

মার্কিন অত্যাধুনিক যুদ্ধবিমানটি ইরানের যাত্রীবাহী বিমানটির এতই কাছকাছি চলে আসে যে পাইলট বিমানের উচ্চতা কমিয়ে নিচে নামাতে বাধ্য হন। উচ্চতা পরিবর্তনের সময় তার মাথা কীভাবে বিমানের ছাদে লেগেছিল তা একজন যাত্রীর বরাত দিয়ে জানিয়েছে ইরানের রাষ্ট্রায়ত্ত বার্তা সংস্থা আইআরআইবি।

এছাড়া ভিডিও ফুটেজে দেখা গেছে, ওই ঘটনার সময় একজন প্রবীণ যাত্রী মেঝেতে পড়ে আহত হন। এক যাত্রী আইআরআইবিকে বলেন, ‘আমি জানি না কি ঘটলো। আমাদের বিমানের কাছকাছি একটি কালো বিমান আসলো এবং আমাদের বিমান তার ভারসাম্য হারালো। আমার মাথা বিমানে ছাদে গিয়ে লেগেছিল।’

অপর একজন বলছেন, ‘এটা ছিল একটা যুদ্ধবিমান। একটি যুদ্ধবিমান আক্ষরিক অর্থেই আমাদের বিমানটিতে লেগে ছিল। আমরা ভারসাম্য হারিয়ে ফেলি এবং উপরে নিচে যাচ্ছিলাম।’ বৈরুত বিমানবনদরের প্রধান রয়টার্সকে জানিয়েছেন, যাত্রীদের সবাই বিমানটি ছেড়েছেন। তবে সামান্য আহত হয়েছেন কয়েকজন।

Source Link

Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!