ভারতে শিগগরিই চালু বিমান যোগাযোগ, থাকছে অনেক বিধি নিষেধও

ভারতেও হানা দিয়েছে মারণ ভাইরাস করোনা। এর কারণে বর্তমানে বন্ধ রয়েছে বিমান যোগাযোগ ব্যবস্থা। তবে ৩ মে দেশটিতে চলতি লকডাউনের মেয়াদ শেষ হবে। এরপর ফের সচল হতে পারে দিল্লির ইন্দিরা গান্ধী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর। তবে প্রচুর বাড়তি বিধি নিষেধ থাকবে।

দেশটির স্থানীয় সংবাদ মাধ্যম সূত্রে জানা যায়, যাত্রী, বিমান কর্মী এবং বিমানবন্দরের কর্মীদের মাস্ক ব্যবহার বাধ্যতামূলক হবে। সিকিউরিটি চেকিং’র সময় যাত্রীদের সারি করে দাঁড়ানোও বন্ধ হচ্ছে। ছোট ছোট দলে ভাগ হয়ে নিরাপত্তা যাচাইয়ের জন্য যেতে হবে। বিমানের ভিতরে টয়লেট ব্যবহারেও থাকবে নিয়ন্ত্রণ। আপাতত কোনো বিমানে যাত্রীদের খাবার পরিবেশন করা হবে না।

এদিকে, গত ২৪ মার্চ ভারত জুড়ে লকডাউন শুরু হওয়ার আগেই, ২২ মার্চ থেকে আন্তর্জাতিক বিমান যাতায়াতে নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছিল। আর ২৫ মার্চ থেকে বন্ধ হয়ে গেছে অন্তর্দেশীয় বিমান যোগযোগ। কিন্তু তার জেরে মাত্র এক মাসে এক হাজার একশ ২০ কোটি ডলার ক্ষতি হয়েছে ভারতীয় বিমান সংস্থাগুলোর। সঙ্কটে পড়েছে বিমান পরিষেবার সঙ্গে প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে যুক্ত ২৯ লক্ষ চাকরি। ফলে ৩ মে থেকে আংশিক বিমান যাতায়াত শুরু করার কথা ভাবা হচ্ছে।

দিল্লি বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ এই বিষয়টি নিয়ে আলোচনায় বসেছিল বিভিন্ন বিমান সংস্থা ও বিমানবন্দরে নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা সিআইএসএফের সঙ্গে। সিদ্ধান্ত হয়েছে, বিমানবন্দরে কোনো যাত্রী হাজির হলেই তার শরীরের তাপমাত্রা মাপা হবে। জ্বর থাকলে সেই যাত্রীকে ভেতরে প্রবেশ করতে দেওয়া হবে না। মাস্ক ছাড়া ঢোকা যাবে না। বিভিন্ন জায়গায়, যেখানে লাইনে দাঁড়াবার দরকার, সেখানে রাখা হবে নিরাপদ দূরত্ব। সবাই একসঙ্গে সিকিউরিটি চেকিংয়ের জন্য ভিড় করতে পারবেন না। ছোট ছোট দলে যেতে হবে। বাকিরা বসে অপেক্ষা করবেন। যার জন্য টার্মিনালের ভেতরে চেয়ারের সংখ্যা বাড়ানো হচ্ছে।

নিউজ সোর্স – কালের কন্ঠ

Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!