ভারতে আটকে পড়া বাংলাদেশিদের জন্য আরো ৬ ফ্লাইট, জেনে নিন কোথা থেকে কবে ফ্লাইট

ভারতে আটকে পড়া বাংলাদেশিদের এর আগে ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্স এর মাধ্যমে দেশে ফেরানোর ব্যবস্থা করলেও এবার বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স আরও যাত্রী আনছে। সেখানে আটকে পড়া অনেক যাত্রী নিয়ে ইতোমধ্যেই ঢাকায় এসেছে ইউএস-বাংলা। এবার বাংলাদেশ বিমান আটকে পড়াদের ফিরিয়ে আনবে।

সোমবার নয়া দিল্লিতে অবস্থিত বাংলাদেশের হাইকমিশন এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে ভারত থেকে কবে কোথা থেকে কখন ছাড়বে সেটা জানায়।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ভারতের বিভিন্ন শহর থেকে আটকে পড়া বাংলাদেশিদের দেশে প্রত্যাবর্তনের জন্য আরাে বিশেষ ফ্লাইট পরিচালনা সংক্রান্ত সংশ্লিষ্ট সকলের অবগতির জন্য জানানাে যাচ্ছে যে ভারতে আটকে পড়া বাংলাদেশিদের স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের জন্য বাংলাদেশ সরকার আরও ৬টি বিশেষ ফ্লাইট পরিচালনার ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে।

প্রয়ােজনীয় সংখ্যক যাত্রী পাওয়া সাপেক্ষে ভারতের বিভিন্ন শহর থেকে বাংলাদেশ বিমান নিম্নবর্ণিত সূচি অনুযায়ী ফ্লাইটসমূহ পরিচালনার প্রস্তুতি চলছে।

কলকাতা থেকে ০১ মে ( শুক্রবার), দিল্লি থেকে ০২ মে (শনিবার), মুম্বাই থেকে ০৩ মে (রোববার) যথাক্রমে বেলা ২টা ৩০ মিনিট, বেলা ২টা ৩০ মিনিট, বেলা ২টা৩০ মিনিটে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ছেড়ে আসবে।
ওই ফ্লাইটগুলিতে টিকিট কেনার জন্য বিমান কর্তৃক নির্ধারিত নির্দিষ্ট ব্যাংক হিসাবে (বাংলাদেশস্থ) বিমান ভাড়া জমা দিতে হবে। বিমানের ওয়েব সাইটে এ সংক্রান্ত প্রয়োজনীয় তথ্য ও নির্দেশনা যথা সময়ে আপলােড করা হবে। তবে আগ্রহী যাত্রীদেরকে সংশ্লিষ্ট বাংলাদেশ মিশনের মাধ্যমে তালিকাভুক্ত হতে হবে। উক্ত তালিকাসমূহ বিমানের ওয়েব সাইটে প্রদর্শন করা হবে। এ তালিকা বহির্ভূত কোনো যাত্রী ভ্রমণ করতে পারবেন না। আসন সংখ্যা সীমিত হওয়ায় ‘আগে আসলে আগে পাবেন’ ভিত্তিতে টিকিট পাওয়া যাবে। তালিকায় নাম অন্তর্ভুক্তি টিকিট প্রাপ্তি নিশ্চিত করে না।

দিল্লি ও মুম্বাই থেকে প্রস্তাবিত ফ্লাইটের ব্যাপারে অতিরিক্ত তথ্যের জন্য বাংলাদেশ বিমানের দিল্লিস্থ অফিসে (+ ৯১ ৮৩৭৭৮ ৩৩৬০৯ ) যােগাযােগ করা যেতে পারে । তালিকাভুক্তির জন্য যাত্রীগণ সংশ্লিষ্ট সমন্বয়কারী মিশনের সাথে যােগাযােগ করতে পারেন । যে সকল যাত্রী দিল্লি থেকে বিমানের ২ মে ২০১০ ( শনিবার )- এর ফ্লাইটে ভ্রমণ করতে চান শুধুমাত্র তাদেরকে অবিলম্বে নিজ নাম, পাসপাের্ট নম্বর , মােবাইল নাম্বার এবং ইমেইল ঠিকানা নয়া দিল্লিস্থ বাংলাদেশ হাই কমিশনে (mission.newdelhi@mofa.gov.bd ) প্রেরণের জন্য অনুরোধ করা যাচ্ছে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরো উল্লেখ করা হয়, ছাত্র-ছাত্রীদেরকে নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের সিলমোহরসহ একক তালিকা প্রেরণের জন্য অনুরােধ করা যাচ্ছে।

উপরােক্ত ফ্লাইটগুলি ছাড়াও পূর্বের ধারাবাহিকতায় ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স যাত্রী প্রাপ্তি সাপেক্ষে চেন্নাই- ঢাকা রুটে আগামী ৩০ এপ্রিল, ০১ মে, ২ মে তারিখে তিনটি বিশেষ ফ্লাইট পরিচালনা করবে।
চেন্নাই ও পার্শ্ববর্তী এলাকায় (বেঙ্গালুরুসহ) অবস্থানরত বাংলাদেশিদের এ ব্যাপারে বিস্তারিত তথ্য ও যাত্রার আনুষ্ঠানিকতার জন্য সংশ্লিষ্ট বিমান সংস্থার সাথে যোগাযােগ করতে অনুরােধ করা যাচ্ছে। বাংলাদেশ মিশনসমূহের হেল্পলাইনও চালু আছে।

উল্লেখ্য, সকল যাত্রীদের তাদের নিজ ব্যবস্থায় যানবাহনে বিমানবন্দরে নির্ধারিত সময়ে ফ্লাইটের জন্য উপস্থিত হতে হবে। তবে বিমানবন্দরে যাওয়ার জন্য ভারতীয় কর্তৃপক্ষের অনুমতির প্রয়ােজন হবে । যাত্রীদের বাসস্থান, আবাসন হতে যাত্রার সময়, যানবাহন ও চালকের বিবরণ প্রেরণ করে হাইকমিশনের মাধ্যমে প্রয়ােজনীয় অনুমতি গ্রহণ করতে হবে।
বিমানে আরােহনের জন্য প্রত্যেক যাত্রীর অবশ্যই কোভিড-১৯ মুক্ত বা কোভিড-১৯ উপসৰ্গমুক্ত সনদ থাকতে হবে।

সকল যাত্রীকে ঢাকা বিমানবন্দরে অবতরণের পর পুনরায় স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হবে এবং বাধ্যতামুলকভাবে ২ (দুই) সপ্তাহ কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে।

নিউজ সোর্স – জাগো নিউজ

Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!