ব্রিটেনে প্রথমবারের মতো ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবেনা

বিশ্বব্যাপী করেনাভাইরাসের কারণে ব্রিটেনে প্রথমবারের মতো খোলামাঠে বা মসজিদে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবেনা জানিয়েছে মুসলিম কাউন্সিল অব ব্রিটেন। একই আহবান জানিয়েছে বারা অব টাওয়ার হ্যামলেটসের কাউন্সিল অব মাস্ক।

করেনাভাইরাসের এ বৈরীসময়ে প্রায় ১০ সপ্তাহ যাবৎ ব্রিটেনের মসজিদগুলোতে নিয়মিত ৫ ওয়াক্ত নামাজ পড়া সম্ভব হচ্ছেনা। এদিকে ঈদের নামাজ সম্পর্কে ঘরে নফল নামাজ আদায় করার কথা বলেছেন ব্রিটেনের ইসলামিক স্কলাররা।

ঈদের নামাজ আদায় করা প্রসঙ্গে ব্রিটেনের ইসলামিক স্কলার শেখ আব্দুর রহমান মাদানী বলেছেন- ইমাম আবু আনাস (র.) – যদি কোন কারনে ঈদের নামাজ মসজিদে আদায় না করতে পারতেন, তখন ঘরে এসে পরিবারের সদস্যদের নিয়ে ঈদের ২ রাকাত নফল নামাজ আদায় করতেন।

তিনি আরো বলেন ভিন্নভিন্ন মাজহাবে মতবেদও ভিন্ন থাকতে পারে। সবমিলিয়ে আমরা মুসলিমরা এক আল্লাহ একত্ববাদে বিশ্বাসী হয়ে আল্লাহর ইবাদতে মশগুল থাকি। আল্লাহ যেন সবাইকে শান্তিপূর্ণভাবে তা পালন করার তৌফিক দান করেন।
ঘরে জামাতে ঈদের নামাজ পড়ার সময় ইমামের পেছনে কমপক্ষে দুজন মুসল্লি / পুরুষের উপস্থিতিতে শব্দ করে কেরাত পড়তে হবে; তবে খুতবা পড়া যাবে না।

ইংল্যান্ডের মুসলিমদের ঈদোত্তর সামাজিক পরিস্থিতি নিয়ে ব্রিটেনের বিশিষ্ট গবেষক ডক্টর রোয়াব উদ্দিন দৈনিক ইনকিলাবের প্রতিবেদককে বলেন – করোনাভাইরাসের এ পরিস্থিতির কারণে যেহেতু প্রয়োজন ছাড়া বাইরে যাওয়া উচিত নয়। সেহেতু ঈদের দিনের আনন্দটুকু্ ঘরে ঘরে গিয়ে শেয়ার না করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বা মুঠোফোনে ঈদানন্দ ভাগাভাগি করার পরামশ্য দিয়েছেন।

বিশেষ করে প্রতিবছর ইংল্যান্ডের তরুনসমাজ দলবেদে কার নিয়ে রোডে বের হয়ে কারস্প্রিট করে বড় ধরনের সড়ক দূর্ঘটনার শিকার হয়ে থাকেন। এবার এরকম কাজ থেকে তরুনদের বিরত থাকার আহবান জানিয়ে, অভিবাবকদের সচেতন হবার অনুরুধ জানান। পরিবারের সাথে সময় ও ঈদানন্দ ভাগাভাগি করে নিজে ভাল থাকতে, কমিউনিটি ভাল রাখতে এখনো নিজ গৃহে থাকার সামাজিক পরামশ্য দিয়েছেন তিনি।

Source Link

Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!