বিমান দুর্ঘটনার শঙ্কায় ঘুড়ি ওড়ানোয় নিষেধাজ্ঞা

ঢাকা-রাজশাহী অভ্যন্তরীণ রুটে বিমান চলাচল বন্ধ থাকলেও আকাশে ঘুড়ি ওড়ানোর ক্ষেত্রে নতুন নির্দেশনা দিয়েছে শাহ মখদুম (রহ.) বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ।

নির্দেশনায় বলা হয়েছে, যেসব এলাকায় বিমান উড্ডয়ন করে সেসব এলাকায় ঘুড়ি ওড়ানো যাবে না। বিষয়টি জানিয়ে গত কয়েকদিন থেকে রাজশাহীর হযরত শাহ মখদুম বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ নিয়মিতভাবে মাইকিং করছে। আকাশে ঘুড়ি উড়ানোর কারণে এখানকার প্রশিক্ষণ বিমানগুলো মারাত্মক ঝুঁকি নিয়েই বর্তমানে উঠানামা করছে।

করোনা পরিস্থিতির কারণে গত ২৫ মার্চ থেকে রাজশাহী-ঢাকা রুটে যাত্রীবাহী বিমান চলাচল বন্ধ রয়েছে। তবে রাজশাহীর হযরত শাহ মখদুম বিমানবন্দরের প্রতিদিন দুই থেকে তিনটি প্রশিক্ষণ বিমান নিয়মিত আকাশে উড্ডয়ন ও বিমানবন্দরের রানওয়েতে অবতরণের মাধ্যমে তাদের প্রশিক্ষণ কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছে।

এদিকে করোনা পরিস্থিতির কারণে ঘরবন্দি অনেক তরুণ ঘুড়ি উৎসবে মেতে উঠেছেন। লকডাউন উঠে গেলেও তারা নিয়মিতই সকাল-বিকাল আকাশে ঘুড়ি উড়িয়ে সময় কাটাচ্ছেন। কেবল ঘুড়ি নয়, লাইলন দড়ি দিয়ে এখন ঘুড়ির চেয়েও বড় ‘চঙ’ তৈরি করে আকাশে উড়াচ্ছেন। এর ফলে আকাশে বড় ধরনের বিমান দুর্ঘটনার আশঙ্কা করা হচ্ছে। তাই দুর্ঘটনা এড়াতে সতর্ক করে মাইকিং করা হচ্ছে।

রাজশাহীর শাহ মখদুম বিমানবন্দরের ব্যবস্থাপক সেতাফুর রহমান বলেন, ঢাকা-রাজশাহী রুটে বিমান চলাচল বন্ধ রয়েছে। তবে প্রশিক্ষণ বিমানগুলো উঠানামা করছে। প্রশিক্ষণ একাডেমিগুলো নিয়মিতভাবে প্রশিক্ষণ পরিচালনা করছে। প্রতিদিন তিনটি প্রশিক্ষণ বিমান উঠানামা করে। আর আন্তর্জাতিক নীতিমালা অনুযায়ী যেসব এলাকায় বিমান উঠানামা করে সেসব এলাকায় ঘুড়ি উড়ানো যাবে না। তাই নিষেধ করে মাইকিং করা হচ্ছে।

Source Link

Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!