প্রথমে ২৮ জনের করোনা পজিটিভ, আবার পরীক্ষায় ২৭ জনেরই নেগেটিভ

চুয়াডাঙ্গায় সাতজন চিকিৎসকসহ ২৮ জনের করোনাভাইরাস শনাক্তের তিনদিন পর পুনরায় পরীক্ষায় একজন ছাড়া বাকিদের রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। আক্রান্ত একজনকে বাড়িতে রেখে চিকিৎসা দেয়া হবে। বৃহস্পতিবার (৩০ এপ্রিল) রাতে চুয়াডাঙ্গার সিভিল সার্জন ডা. এএসএম মারুফ হাসান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

সিভিল সার্জন জানান, গত ২৬ এপ্রিল চুয়াডাঙ্গা থেকে করোনাভাইরাস পরীক্ষার জন্য কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজের ল্যাবে ৫১ জনের নমুনা সংগ্রহ করে পাঠায় স্বাস্থ্য বিভাগ। এরপর ২৮ এপ্রিল দুপুরে কুষ্টিয়া থেকে করোনাভাইরাস পরীক্ষার রিপোর্টে আলমডাঙ্গা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ৭ চিকিৎসকসহ ১৯ জন এবং সদর উপজেলার দুইজন নার্সসহ ৯ জনের করোনা পজিটিভ দেখানো হয়। ওই দিন রাতেই ২৮ জনের করোনাভাইরাসের ফলাফল কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজ কর্তৃপক্ষ অমীমাংসিত ঘোষণা করে এবং পুনরায় পরীক্ষার জন্য নমুনাগুলো আইইডিসিআরে পাঠায়। আইইডিসিআর থেকে বৃহস্পতিবার রাতে আসা রিপোর্টে বলা হয়- ২৮ জনের মধ্যে সদর উপজেলায় এক জনের করোনাভাইরাস পজিটিভ।

তিনি বলেন, করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ব্যক্তিকে বাড়িতে রেখে চিকিৎসা দেয়া হবে। আলমডাঙ্গা উপজেলার সাতজন চিকিৎসকসহ অন্যদের কোনো সমস্যা নেই।

উল্লেখ্য, জেলায় এ পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ১০ জন। এদের মধ্যে একজন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন।

নিউজ সোর্স – জাগো নিউজ

Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!