পাসপোর্টে ভুল, আসলে আমার জন্মদিন ৯ মে : মুশফিক -Deshebideshe


ঢাকা, ১০ মে- তার জন্মদিন নিয়ে একটি ভুল বোঝাবুঝির উপক্রম হতেই পারে। কারণ গুগল, উইকিপিডিয়া, ক্রিকইনফো আর ক্রিকবাজে লেখা আছে মুশফিকুর রহীমের জন্মদিন হলো ৯ জুন, ১৯৮৭। কিন্তু ৯ মে (শনিবার) ভোরের সূর্য ওঠার আগে থেকেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জন্মদিনের শুভেচ্ছায় শিক্ত হয়েছেন মুশফিক।

ঘনিষ্ট সূত্র যদিও এ প্রতিবেদককে নিশ্চিত করেছিল মুশফিকের জন্মদিন ৯ জুন নয়, ৯ মে এবং তার পিতা-মাতা, পরিবার পরিজন ও মুশফিক নিজে ৯ মে’ই জন্মদিন পালন করেন। তারপরও যেহেতু এ নিয়ে মুশফিকের নিজের কোন বক্তব্য আনুষ্ঠানিকভাবে গনমাধ্যম কিংবা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আসেনি, তাই এটি নিয়ে ছোটখাটো একটি বিভ্রান্তি কিন্তু ছিল।

কেউ কেউ এমনও বলেছেন, অনলাইনে যাই লিখুক আর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তাকে যতই জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানানো হোক; ক্রিকেটের বিশ্বখ্যাত ওয়েবসাইট ক্রিকইনফো আর ক্রিকবাজ কি ভুল লিখেছে? নিশ্চয়ই জেনে বুঝেই লিখেছে যে, ৯ জুন মুশফিকের জন্মদিন।

অবশেষে সেই অনিশ্চয়তা, ভুল বোঝাবুঝি আর বিভ্রান্তির অবসান ঘটেছে। মুশফিক নিজ মুখে জানিয়ে দিয়েছেন, হ্যাঁ খানিক বিভ্রান্তির উদ্রেক ঘটেছে। হয়তো কিছু ভুল বোঝাবুঝিও হয়েছে। তবে আসল কথা হলো আমার প্রকৃত জন্ম দিন ‘৯ মে’ মানে শনিবারই ছিল তার ৩৩তম জন্মদিন।

গতকাল (শনিবার) রাতে এক ফেসবুক লাইভে মুশফিক জানিয়েছেন এ কথা। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ২০১৩ সালে গলে করা ডাবল সেঞ্চুরির ব্যাটের নিলামের আনুষ্ঠানিক সূচনা লগ্নে করা এক ফেসবুক লাইভে জন্মতারিখ নিয়ে বিভ্রান্তির বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে, পুরো বিষয়টি পরিষ্কার করে দিয়েছেন মুশফিক।

সঞ্চালক জানতে চেয়েছিলেন গুগলে দেখলাম যে, আজ (৯ মে) নয়, আপনার জন্মতারিখ ৯ জুন। সেটা কী করে হলো? বিনয়ী মুশফিকের হাসিমাখা জবাব, ‘আসলে আমার জন্মতারিখ ৯ মে। তবে একটি ছোট্ট ভুল বোঝাবুঝি হয়ে গেছে।’

সেটা কীভাবে? মুশফিকের উত্তর, ‘ঘটনাটি ঘটেছে আমার পাসপোর্ট নবায়নের কাগজপত্র তৈরির সময়। তখন আমি স্বশরীরে উপস্থিত ছিলাম না। তাই ঐ জায়গায় জন্মতারিখ বসাতে একটা ভুল হয়ে গেছে। তবে আমার জাতীয় পরিচয়পত্রে ঠিকই ৯ মে আমার জন্মদিন লেখা আছে। খুব শিগগিরই ভুলটা সংশোধন করে নেব আমি।’

‘পরিবার, আত্মীয় পরিজন ছাড়াও অগণিত সুহ্রদ, শুভানুধ্যায়ী আমাকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। ব্যস্ততার কারণে সবাইকে জবাব দিতে পারিনি। সে জন্য দুঃখিত। তবে সবাইকে ধন্যবাদ আমাকে উইশ করার জন্য। আমাকে দোয়া করার জন্য।’

রসিকতার সুরে হেসে হেসে মুশফিকের শেষ কথা, ‘জন্মদিন যদি দুই-তিনটি হয়, তাহলে তো আরেক মজা। ঘটা করে কয়েকটি জন্মদিনের উৎসব পালন করা যায়!’

সূত্র: জাগোনিউজ

আর/০৮:১৪/১০ মে





Source link

Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!