জুলাইয়ের শুরুতেই পর্যটকদের স্বাগত জানাবে আরব আমিরাত

জুলাইয়ের শুরুতেই পর্যটকদের স্বাগত জানানো হবে, তাদের পদভারে মুখরিত হয়ে উঠবে আরব আমিরাত, এমনটাই আশা প্রকাশ করেছেন দুবাই ট্যুরিজমের মহাপরিচালক। সংযুক্ত আরব আমিরাত ২৪ মার্চ ৪৮ ঘণ্টা আগের ঘোষণায় অ্যারাভ্যাল সমস্ত ফ্লাইট বন্ধ ঘোষণা করায় হাজার হাজার লোক আটকা পড়ে। এখন, আগামী কয়েক মাসের মধ্যেই পর্যটন পুনরায় শুরু হতে পারে।

এর অর্থ সমস্ত পর্যটন না অভ্যন্তরীণ? বহু দেশ প্রাথমিকভাবে কেবল অভ্যন্তরীণ ভ্রমণের অনুমতি দিয়েছে, তবে এখানে এটি স্পষ্ট নয়। ইত্তেহাদ এয়ারলাইন্স আগামী ১৬ জুন থেকে তাদের ফ্লাইট পরিচালনা শুরু করবে বলে জানিয়েছে। আরব আমিরাতে সংক্রমণ ব্যাপক নয়। দেশটিতে ১১ হাজার ৯২৯ জন শনাক্ত হয়েছে এবং মারা গেছে ৯৮ জন। ২৬ মার্চ দেশজুড়ে রাত্রীকালীন কারফিউ জারি করা হয় এবং ৪ জুলাই ২ সপ্তাহের জন্য লকডাউন ঘোষণা করা হয়। দুবাই ৩০ শতাংশ হারে ক্যাফে-রেস্তরাঁ এবং আংশিকভাবে শপিং মলগুলোও খুলে দিয়েছে।

আমিরাতই প্রথম বিমান সংস্থা যারা দুবাই থেকে তিউনিসিয়ার ফ্লাইটে কোভিড-১৯ টেস্ট চালু করে যাতে মাত্র মাত্র দশ মিনিট সময় নেয়। চিফ অপারেটিং অফিসার আদেল আল রেজা বলছিলেন, অন্যান্য ফ্লাইটেও এই পরীক্ষাগুলি ব্যবহার শুরু করার পরিকল্পনা ছিল।

এদিকে বিশ্বজুড়ে গতকাল রাত সাড়ে ৮টায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত বলে শনাক্ত হয়েছে ৩২ লাখ ৫১ হাজার ৭০১ জন এবং মারা গেছেন ২ লাখ ২৯ হাজার ৮৩৩ জন। সুস্থ হয়ে পরিবারে ফিরেছেন ১০ লাখ ১৮ হাজার ৮৭৯ জন। এদিকে গতকাল আরো মারা গেছেন- যুক্তরাষ্ট্রে ৫২০, স্পেনে ২৬৮, মেক্সিকোয় ১৬৩, সুইডেনে ১২৪, রাশিয়ায় ১০১, বেলজিয়ামে ৯৩, হল্যান্ডে ৮৪, ইরানে ৭১, জার্মানিতে ৫১, ব্রাজিলে ৩০, সুইজারল্যান্ডে ২১, পর্তুগালে ১৬ ও পাকিস্তানে ১৫ জন।

এদিকে রাশিয়ায় শনাক্ত ও মৃতের সংখ্যা আশঙ্কাজনক হারে বৃদ্ধি পাচ্ছে। দেশটিতে আক্রান্তের সংখ্যা গতকাল এক দিনে আরো ৭ হাজার ৯৯ জন বেড়ে ১ লাখ ৬ হাজার ৪৯৮ জনে দাঁড়িয়েছে। প্রেসিডেন্ট ভøাদিমির পুতিন দেশের মানুষকে সতর্ক করে দিয়ে বলেছেন, প্রাদুর্ভাবের চ‚ড়ান্ত শিখরে এখনো পৌঁছানো যায়নি। ভ‚খÐের দিক থেকে পৃথিবীর বৃহত্তম দেশটি গত মার্চের শেষ থেকে লকডাউনে রয়েছে। পুতিন আরো দু’সপ্তাহের জন্য লকডাউন বাড়াতে চান। তিনি বলেন, পরিস্থিতি এখনও কঠিন, আমরা নতুন ও মহামারীর চরম পর্যায়ে রয়েছি’।

দক্ষিণ কোরিয়া জানিয়েছে, গত ২৯ ফেব্রæয়ারি থেকে এই প্রথম তাদের দেশে নতুন করে কেউ আক্রান্ত হয়নি। একই তথ্য জানিয়েছে হংকং। দেশটিতে টানা ৫ দিন কেউ আক্রান্ত হয়নি। অস্ট্রেলিয়ায় গত বুধবার মাত্র ৯ জন শনাক্ত হয়েছে এবং নিউজিল্যান্ডে এক সপ্তাহেরও বেশি সময়ে মাত্র ১ জন শনাক্ত হয়েছে।

ওদিকে দুটি পবিত্র মসজিদের বিষয়ক জেনারেল প্রেসিডেন্সি ঘোষণা করেছে যে তারা কোভিড-১৯ এর বিস্তার রোধে চলমান সতর্কতামূলক পদক্ষেপের অংশ হিসাবে মক্কার গ্র্যান্ড মসজিদ ও কাবা জীবাণুমুক্ত করার জন্য ওজোন প্রযুক্তি ব্যবহার করছে।

গ্র্যান্ড মসজিদে শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থায় ওজোন-প্রযুক্তি নির্বীজন ডিভাইস ইনস্টল করা হয়েছে এবং মোবাইল ডিভাইস ব্যবহার করে মেঝে এবং কার্পেট নির্বীজিত করেছে।
ওজোন গ্যাসে প্রচুর পরিমাণে অক্সিডেন্ট থাকে যা কিছু ব্যাকটিরিয়া এবং ভাইরাসসহ অণুজীবকে মেরে ফেলতে সক্ষম হয়। এছাড়াও, এটি অনেক শিল্প পরিষ্কারের সমাধানের বিপরীতে বিষাক্ত অবশিষ্টাংশ ফেলে রাখে না।
দুটি পবিত্র মসজিদের মহাপরিচালক শেখ ডা. আবদুর রহমান বিন আবদুল আজিজ আল-সুদাইসের নির্দেশ অনুসারে এই নির্বীজন ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

সংক্রমণ রোধে স্পেনের পরিকল্পনা
স্পেনে করোনায় মৃতের সংখ্যা যেমন কমেছে, তেমনি নতুন আক্রান্তের সংখ্যাও কমেছে। পরিস্থিতি বিবেচনা করে দেশটির নাগরিকদের স্বাভাবিক জীবনযাত্রায় ফিরিয়ে আনতে সরকার ৪ ধাপের পরিকল্পনা ঘোষণা করেছে।

স্পেনের প্রধানমন্ত্রী পেদ্র সানচেজ ৪ ধাপের বর্ণনা দেন। ৪ মে থেকে ধাপগুলোর প্রয়োগ শুরু হবে এবং জুনের শেষে স্বাভাবিক অবস্থা ফিরে আসতে পারে বলে প্রধানমন্ত্রী আশা ব্যক্ত করেন। ধাপগুলোর মধ্যে রয়েছে, ৪ মে থেকে পার্সেল খাবার পরিবেশনের জন্য রেস্তরাঁগুলো এবং হার্ডওয়্যার স্টোর, সেলুন খোলা রাখা যাবে। দ্বিতীয় ধাপে ১১ মে থেকে হোটেল, বড় বড় শপিং সেন্টার ও কমার্শিয়াল পার্ক বাদে তুলনামূলক ছোট প্রতিষ্ঠানগুলো নির্ধারিত নিয়মের মাধ্যমে খুলে দেয়া হবে। ২৫ মে থেকে বার, রেস্তরাঁ ও এ জাতীয় ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খোলা রেখে ভেতরের তিনভাগের একভাগ জায়গায় টেবিল বসিয়ে গ্রাহকদের সেবা দেয়া যাবে। ৮ জুন থেকে শুরু হবে স্বাভাবিক অবস্থা ফিরে না আসা পর্যন্ত বাইরে ও পরিবহনে মাস্ক ব্যবহারের জন্য পরামর্শ থাকবে।

সূত্র : দি সান, আরব নিউজ, নিউইয়র্ক টাইমস, আরব নিউজ।

Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!