গার্দিওলার অধীনে যেন ফুটবল নয়, দাবা খেলেছি -Deshebideshe


ইউরোপিয়ান ক্লাব ফুটবল ইতিহাসের অন্যতম সেরা কোচ পেপ গার্দিওলা। যে দলেই গিয়েছেন, সাফল্য ধরা দিয়েছে তার হাতে। সবচেয়ে বেশি সফল ছিলেন স্প্যানিশ ক্লাব বার্সেলোনার হয়ে। দলটির হয়ে এক মৌসুমের ছয় শিরোপার সবকয়টি জিতেছিলেন গার্দিওলা। যে রেকর্ড নেই বিশ্বের আর কোন খেলোয়াড়ের।

এর পেছনে বিশেষ কোন মন্ত্র নেই। গার্দিওলা নিজ দলকে সাজান খুবই গোছালভাবে। সবাইকে বুঝিয়ে দেন যার যার দায়িত্ব। কেউ নিজের কাজ করতে ভুল করলে ব্যাকআপ প্ল্যানও রেডি থাকে এ মাস্টারমাইন্ডের। যার ফলে তার অধীনে খেলাটা মনে হয় যেন দাবার গুটি চালনার মতো।

এ কথা কোন যেনতেন মানুষ নয়, বলেছেন স্বয়ং গার্দিওলার অধীনে বার্সেলোনায় খেলা ফ্রান্সের তারকা স্ট্রাইকার থিয়েরি অঁরি। ২০০৭ সালে আর্সেনাল ছেড়ে বার্সায় নাম লিখিয়েছিলেন অঁরি। তার আগে গানারদের হয়ে ২২৬ গোল করে জিতিয়েছিলেন দুইটি প্রিমিয়ার লিগ শিরোপা।

আর্জেন্টাইন তারকা সার্জিও আগুয়েরোর সঙ্গে এক ইন্সটাগ্রাম আড্ডায় অঁরি বলেছেন, ‘আমি কখনও ভাবিনি যে আর্সেনাল ছেড়ে যাব। তবে তা করেছিলাম। আমি গেলাম বার্সেলোনায়। সেখানে খেলার ধরন পুরোপুরি ভিন্ন যা আমাকে পুনরায় শিখতে হয়েছিল। তবে আমার স্বাধীনতা ছিল। মাঝে খেলতে পারতাম, বল নিয়ে ডানে-বামেও যেতে পারতাম।’

বার্সেলোনায় প্রথম মৌসুমে ফ্র্যাংক রিজকার্ডকে কোচ হিসেবে পেয়েছিলেন অঁরি। পরে তিনি পান গার্দিওলাকে, যে তাকে অনেক বেশি স্বাধীনতা দিয়েছিল। গার্দিওলার প্ল্যানগুলো এতটাই নিখুঁত ছিল যে, অঁরির মনে হতো তারা মাঠে দাবা খেলছেন।

ফ্রেঞ্চ তারকার ভাষ্য, ‘শুরুতে আমি রিজকার্ডকে পেলাম, সে আমাকে বামে খেলতে বললো। তারপর পেপ আসলেন, তিনি অসাধারণ কোচ। তবে তার চাহিদা অনেক এবং গোছাল খেলেন। মনে হয় যেন দাবা খেলছি। মাঠে প্রায়ই মেকি দৌড় দিতে হতো ডিফেন্ডারদের বোকা বানাতে এবং অন্যদের জন্য জায়গা বানাতে।’

‘আমরা তখন দুইজন নম্বর-১০ এবং একজন হোল্ডিং মিডফিল্ডার নিয়ে খেলতাম। ফলে আমার সবসময় উল্টো দৌড়ে (আন্দ্রেস) ইনিয়েস্তার জন্য জায়গা করতে হতো, যাতে সে বলটা সহজে পায়। আমি ধীরে ধীরে এই পরিকল্পনা বুঝতে শুরু করি। যখন এটার সঙ্গে পুরোপুরি মানিয়ে নেই, তখন তো ২০০৯ সালে সম্ভাব্য সব শিরোপাই জিতে নেই। সে সময়টা দারুণ ছিল। তবে আর্সেনাল সবসময় আমার হৃদয়ের কাছে।’

সূত্র : জাগো নিউজ
এন এইচ, ০৯ মে





Source link

Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!