কানাডার বিমানবন্দরে প্রত্যেক যাত্রীকে মুখ ঢেকে রাখতে হবে

কানাডার পরিবহন সংস্থা এক ঘোষণায় জানিয়েছে যে, ভ্রমণের সময় সব এয়ারলাইন্সের যাত্রীদের নন-মেডিক্যাল মাস্ক পরতে হবে অথবা মুখ ঢেকে রাখতে হবে। করোনার বিস্তার ঠেকাতেই এমন পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

বিমানবন্দরে সব কার্যক্রম এবং ফ্লাইটের সময় যাত্রীদের অবশ্যই মুখ ঢেকে রাখতে বলা হয়েছে। নতুন ঘোষণায় বলা হয়েছে, ভ্রমণকারীদের অবশ্যই বোর্ডিং এবং ফ্লাইটের সময় নাক ও মুখ ঢেকে রাখতে হবে।

আগামী সোমবার থেকেই নতুন এই নীতি কার্যকর হবে। করোনার প্রকোপ ঠেকাতে শুরু থেকেই কঠোর ব্যবস্থা নিয়েছে কানাডা। দেশব্যাপী লকডাউন চলছে। এমনকি লকডাউনের সময় জনগণকে সব ধরনের সহায়তাও দিয়ে যাচ্ছে কানাডা সরকার।

সাধারণত মানুষ থেকে মানুষে করোনার সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ে। এই ভাইরাসে আক্রান্ত হলে জ্বর, সর্দি, কাশি, হাঁচি ও শ্বাসকষ্টের মতো উপসর্গ দেখা দেয়। হাঁচি-কাশির মাধ্যমে এই ভাইরাসের সংক্রমণ ছড়ায়। সে কারণেই বাড়ির বাইরে বের হলে মাস্ক পরা এবং যতটা সম্ভব জনসমাগম এড়িয়ে চলা ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার ব্যাপারে বার বার সচেতন করছেন বিশেষজ্ঞরা।

কানাডায় এখন পর্যন্ত করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ৩১ হাজার ৯২৭। অপরদিকে মারা গেছে ৩১০ জন এবং সুস্থ হয়ে উঠেছে ১০ হাজার ৫৪৩ জন। তবে ৫৫৭ জনের অবস্থা এখনও আশঙ্কাজনক।

এদিকে, যানবাহনে যেন মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করা হয় সেজন্য ব্রিটিশ সরকারকে আহ্বান জানিয়েছেন লন্ডনের মেয়র সাদিক খান। বিশেষ করে রাজধানীজুড়ে এবং শপিং সেন্টারগুলোতে মাস্ক বাধ্যতামূলক করা উচিত বলে মনে করেন তিনি।

মেয়র সাদিক খান বলেন, বিশ্বব্যাপী এ বিষয়টি এখন প্রমাণিত যে করোনা ভাইরাসের বিস্তাররোধে সাহায্য করে মাস্ক। মুখ ঢেকে রাখা গেলে এই ভাইরাসের প্রকোপ থেকে বেঁচে থাকা সম্ভব।

অপরদিকে, করোনার বিস্তার ঠেকাতে নিউইয়র্ক, মেরিল্যান্ড, কানেক্টিকাট এবং পেনসিলভানিয়া অঙ্গরাজ্যের বাসিন্দাদের জনসমাগম ঘটে এমন স্থানে মাস্ক পরার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এর আগে সিঙ্গাপুরে বাড়ির বাইরে বের হলে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করা হয়।

নিউজ সোর্স – জাগো নিউজ

Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!